January 20, 2022

মুক্ত বাংলা সংবাদ

সবার আগে সঠিক খবর

বরিশালে পুলিশের কাছ থেকে আসামি-ওয়্যারলেস ছিনতাই, কারাগারে ৭

নিজস্ব প্রতিবেদক :: বরিশালে হাতকড়া পরা অবস্থায় এজাহারভুক্ত আসামি ও ওয়্যারলেস ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনায় সাতজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (৪ জানুয়ারি) বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাদের জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।এছাড়া এ ঘটনায় ২৫ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরও ২৫-৩০ জনকে আসামি করে কোতোয়ালি থানায় এসআই জয়ন্ত দত্ত বাদী হয়ে মামলা করেছেন।পুলিশের একটি সূত্র জানায়, বরিশাল কোতোয়ালি মডেল থানার একটি মারামারি মামলার এজহারভুক্ত এক নম্বর আসামি শহিদুল ইসলাম নগরীর ভাটারখাল সংলগ্ন ডিসি ঘাটের পাশে অবস্থান করছেন, এমন তথ্যের ভিত্তিতে কোতোয়ালি থানার এসআই জয়ন্ত দত্ত ও এসআই অলিপ কুমার সাহা রাত সাড়ে ১০টার দিকে সেখানে অভিযান চালান। তারা সেখানে উপস্থিত হয়ে দেখতে পান ডিসি ঘাটের পাশে একটি রেস্তরাঁয় পিকনিকের আয়োজন করা হয়েছে। তাতে ৪০ থেকে ৫০ যুবক অংশ নেন। ওই যুবকদের সঙ্গে আসামি শহিদুল ইসলামকে দেখতে পান ওই দুই পুলিশ সদস্য।এ সময় কৌশলে তাকে ডেকে হাতকড়া পরিয়ে থানায় নিয়ে আসার চেষ্টা করেন। কিন্তু পিকনিকে অংশ নেওয়া বাকি যুবকরা ঘটনাটি দেখে ফেলেন। তারা এসে শহিদুল ইসলামকে থানায় নিয়ে যেতে বাধা দেন। এতে ওই দুই পুলিশ কর্মকর্তার সঙ্গে যুবকদের ধস্তাধস্তি হয়। একপর্যায়ে তারা দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে ঘিরে ফেলে আসামি শহিদুল ইসলামকে ছিনিয়ে নেন।

এ সময় এসআই অলিপ কুমার সাহা বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানানোর জন্য ওয়্যারলেস হাতে নেন। অলিপ কুমার সাহার হাত থেকে ওয়্যারলেসটি ছিনিয়ে নেন ওই যুবকরা। পরে খবর পেয়ে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ অতিরিক্ত পুলিশ সদস্যরা প্রায় আড়াই ঘণ্টা অভিযান চালিয়ে হাতকড়াসহ আসামি শহিদুল ইসলামকে ভাটারখাল সংলগ্ন বস্তি থেকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হন। পাশাপাশি ছিনিয়ে নেয়া ওয়্যারলেসট উদ্ধার করা হয়।

কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিমুল করিম বলেন, শহিদুল ইসলামকে থানায় নিয়ে এসে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে তাকে ছিনিয়ে নেওয়া জড়িতদের নাম ঠিকানা জেনে গ্রেফতারে পুলিশের একাধিক দল অভিযানে নামে। পাশাপাশি আসামি ছিনতাইয়ের ঘটনায় ২৫ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাতনামা আরও ২৫-৩০ জনকে আসামি করে কোতোয়ালি থানায় এসআই জয়ন্ত দত্ত বাদী হয়ে একটি মামলা করে। এরপর সোমবার দিনগত রাত থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত নগরীর বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে আসামি ছিনতাইয়ের সঙ্গে জড়িত সাতজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।